আন্তর্জাতিক

অর্থ সঙ্কটে লেখা পড়া বন্ধের মুখে মাথাভাঙা দলোনাথ উচ্চবিদ্যালয়ের কৃতি ছাত্রীর

তন্ময় দাসঃ
বাবা নেই, মা ক্ষেত মজুরের কাজ করেন, নিজে সেলাইয়ের কাজ করে এবছর উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষায় কলা বিভাগে ৪৪২ নম্বর পেয়ে পাশ করেছে।

মাথাভাঙ্গা ১ নম্বর ব্লকের গোপালপুর দলোনাথ উচ্চবিদ্যালয় থেকে প্রথম বিভাগে উতীর্ণ ওই ছাত্রীর নাম সোমা বর্মণ। আর্থিক সঙ্কটে ভালো করে প্রস্তুতি নিতে পারে নি সে। তাঁর কথায়, “আর একটু প্রস্তুতি নিতে পারলে রেজাল্ট আরও ভালো হত।

সোমার এই সাফল্যে গর্বিত স্কুল শিক্ষক থেকে পরিবারের সদস্যরা। ভবিষ্যতে সোমা ইতিহাস নিয়ে পড়তে চায়। উচ্চশিক্ষায় তাঁর বাধা অর্থ। সোমার মা কল্পনা বর্মন জানিয়েছেন, সোমার বাবা লক্ষীনারায়ণ বর্মন বছর ছয়েক আগে মারা গিয়েছেন।

তারপর থেকে সংসারের দায়িত্ব নিজের হাতে তুলে নিয়েছেন তিনি। সোমা ছাড়াও আরও এক ছেলে রয়েছে তাঁর। কৃষিজমিতে কাজ করে ২ বেলা খাবার তুলে দেন সন্তানদের। দুজনের পড়াশুনার খরচ চলে সেখান থেকে।

কল্পনা দেবীর কথায়, “বাড়ির কাছে স্কুল ছিল। যাতায়াতের ভাড়া লাগে নি। বাকি খরচ সোমা নিজেই সেলাইয়ের কাজ করে করেছে। কিন্তু এখন কি হবে? কেউ সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে না দিলে ওর লেখা পড়া এগিয়ে নিয়ে যাওয়া খুব কঠিন হয়ে পড়বে।”

Tags
Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close