জাতীয়বাংলাদেশ

শেরপুরে এক রশিতে প্রেমিক-প্রেমিকার ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার

রয়েল ডেস্ক: শেরপুরের শ্রীবরদীতে একই রশিতে ঝুলন্ত অবস্থায় তরুণ-তরুণীর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। অভিযোগ রয়েছে, তারা ‘আত্মহত্যা’ করেছেন।১৪ ডিসেম্বর, শুক্রবার সকাল ৮টার দিকে উপজেলার কাকিলাকুড়া ইউনিয়নের পশ্চিম পিরিচপুর গ্রাম থেকে তাদের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।নিহতরা হলেন পশ্চিম পিরিচপুর গ্রামের আবদুল বারিকের ছেলে মনির হোসেন (২৬) এবং একই গ্রামের বাসিন্দা আবদুল করিমের মেয়ে কল্পনা আক্তার (২২)।স্থানীয়দের বরাত দিয়ে পুলিশ জানিয়েছে, মনির হোসেন এলাকায় কৃষিকাজের সঙ্গে জড়িত। কল্পনা আক্তারের সঙ্গে মনির হোসেনের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। কিন্তু দুই পরিবারের কেউই তাদের এ সম্পর্ক মেনে নেয়নি। একপর্যায়ে মনিরকে তার পরিবার বিয়ে দেয়। কিছুদিন আগে কল্পনার অসম্মতিতে তার পরিবার হিম্মত আলী নামে গাজীপুরে টেক্সটাইল মিলে চাকরি করা এক ছেলের সঙ্গে বিয়ে দেয়।
আরও জানা গেছে, কয়েকদিন আগে কল্পনা আক্তার বাবার বাড়িতে বেড়াতে আসে এবং মনিরের সঙ্গে যোগাযোগ করে। বৃহস্পতিবার রাতের কোনো একসময়ে তারা দুইজনেই ঘর থেকে বের হয়ে পার্শ্ববর্তী আবদুল খালেকের বাড়ির পাশে জামবুড়া গাছের ডালে গলায় একই রশি বেঁধে ঝুলে ‘আত্মহত্যা’ করে। শুক্রবার সকালে আশপাশের লোকজন তাদের ঝুলতে দেখে থানায় খবর দেয়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তাদের মরদেহ উদ্ধার করে।
স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) সদস্য সিদ্দিকুর রহমান জানান, বিয়ের পর মনির ও কল্পনার মাঝে কোনো যোগাযোগ ছিল না। হঠাৎ করেই তারা ‘আত্মহত্যা’ করেছে।
শ্রীবরদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ রহুল আমিন তালুকদার জানান, স্থানীয়দের কাছ থেকে সংবাদ পেয়ে দুই তরুণ-তরুণীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। এ ব্যাপারে থানায় একটি অপমৃত্যু (ইউডি) মামলা রেকর্ড করে ময়নাতদন্তের জন্যে মরদেহ জেলা হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে

আরো দেখুন

এই বিভাগের আরও কিছু খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close